জাতীয়

মায়ের কোলে ফিরল আলিফ ও গালিব

পারিবারিক কলহের জের ধরে দাদীর দায়ের করা মি’থ্যে মা’ম’লায় মা কারাগারে। একই মা’ম’লায় বাবা গ্রে’প্তা’রি পরোয়ানা নিয়ে আত্মগো’প’নে, দাদী ও ফুফু শি’শু সন্তানদের ঘর থেকে বের করে দেয়ায় বাধ্য হয়ে দুগ্ধপোষ্য শি’শুভ্রাতাকে সঙ্গে নিয়ে মায়ের মুক্তি চেয়ে জে’লা প্রশাসক কার্যালয় চত্তরে অবস্হান কর্মসূচি করে ১২ বছরের অসহায় শি’শু আলিফ।

রবিবার (১৮ জুলাই) মায়ের জামিন হওয়ার আগের রাতে সোহেল হাফিজের আশ্রয়ে থাকা এই দুই সহোদরকে পৃথক করে বরগুনা জে’লা প্রশাসন। সোহেল হাফিজের বাসা থেকে দুগ্ধপোষ্য শি’শু গালিবকে পাঠানো হয় বরিশালের আগৈলঝাড়ার ছোটমনি শি’শু নিবাসে। আর আলিফকে পাঠানো হয় বরগুনার শেখ রাসেল শি’শু কি’শোর পুনর্বাসন কেন্দ্রে। সোমবার (১৯ জুলাই) সকালে কারাব’ন্দি ওই দুই শি’শুর মা আনিতা জামানের জামিন মঞ্জুর করেন বরগুনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আ’দা’লত। পরে বিকেল ৪টার দিকে বরগুনা জে’লা কারাগার থেকে কারামুক্ত হন তিনি।

আনিতা জামান যখন কারামুক্ত হন তখন তার দুই শি’শু সন্তান বরিশাল ও বরগুনার ভিন্ন দুই কারাগারে ব’ন্দি। এরপর কারামুক্ত হয়েই তিনি বরগুনা জে’লা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে দুই শি’শু সন্তানকে ফিরে পেতে আকুতি জানান। বরিশালে থাকা দুগ্ধপোষ্য শি’শু গালিবের সঙ্গে তার মায়ের কথোপকথনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন একজন সাংবাদিক। ফোনের ওপারে থাকা শি’শু গালিবের আর্তচি’ৎ’কারের সেই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বিকেলে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সেই শি’শু সন্তানকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয় প্রশাসন।এর আগে বরগুনার শেখ রাসেল শি’শু কি’শোর পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে গালিবকে ফিরিয়ে দেওয়া হয় তার মা আনিতা জামানের কাছে।

গেল বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) থেকে দাদীর করা মা’ম’লায় চৌদ্দ শিকের ভেতর আ’ট’কে আছে মা, সাথে নেই বাবাও। পারিবারিক কলহের জের ধরে বরগুনায় দাদীর দায়ের করা মি’থ্যে মা’ম’লায় মা এখনো কারাগারে। একই মা’ম’লায় বাবা গ্রে’প্তা’রি পরোয়ানা নিয়ে আত্মগো’প’নে। দাদী ও ফুফু শি’শু সন্তানদের ঘর থেকে বের করে দেয়ায় বাধ্য হয়ে দুগ্ধপোষ্য শি’শুভ্রাতাকে সঙ্গে নিয়ে মায়ের মুক্তি চেয়ে আজ জে’লা প্রশাসক কার্যালয় চত্তরে অবস্হান কর্মসূচি করে ১২ বছরের অসহায় শি’শু আলিফ।

শনিবার (১৭ জুলাই) সকালে শহরের টাউনহল এলাকার অ’গ্নিঝরা একাত্তরের পাদদেশে অসহায় দুই শি’শুর এ অবস্থান কর্মসূচি দেখতে ভিড় জমান উৎসুক জনতা। আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন অনেকেই। ভুক্তভোগী শি’শু আলিফের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাবার চাকুরির সুবাদে তারা গাজিপুর জে’লায় বসবাস করে আসছিল। সে সেখানকার একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে একটি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে মেধাবী শিক্ষার্থী আলিফ ইংল্যান্ডে লেখাপড়ার সুযোগ পেয়েছে। তার ভিসাও প্রস্তুত। ক’রো’নার কারণে তার ইংল্যান্ড যাওয়া বিলম্বিত হয়েছে।অথচ এমন একটি সময়ে তার দাদীর দায়ের করা মি’থ্যে মা’ম’লায় কারাগারে রয়েছে তাদের মা আনিতা জামান। শি’শু আলিফ আরও জানায়, তার বয়স এখন ১২ বছর। অথচ মি’থ্যে মা’ম’লায় তার বয়স ১৮ বছর দেখিয়ে তাকেও আসামী করা হয়েছে!

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!